বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই পর্যন্ত পড়ার পর প্রথম প্রতিক্রিয়া যেটা হওয়া স্বাভাবিক সেটা হলো, ‘ভালোই তো, সমস্যাটা কোথায়? যন্ত্র সমাজ কন্ট্রোল করছে, শান্তি বজায় রাখছে; খারাপ কী?’

সমস্যা দুটো । এক. যন্ত্র কি আসলেই মানুষের মনের পরিমাপ করতে পারে? ভালো-মন্দ, অপরাধ, শিল্প, মানবিকতা—এই জিনিসগুলো কি আসলেই পরিমাপযোগ্য? কিছু নির্দিষ্ট মানদণ্ড ধরে হয়তো একটা ঘটনাকে ‘অপরাধ’ বলা যেতে পারে কিন্তু অপরাধ ঘটার আগেই কি সেটা যন্ত্রের মাধ্যমে অনুমান করা সম্ভব? আর ভালো আর মন্দের সংজ্ঞাটা আসলে কী? কোন অপরাধের কী শাস্তি হওয়া উচিত তা পারিপার্শ্বিক অবস্থা বিবেচনা না করে যন্ত্র কি সিদ্ধান্ত নিতে পারে, নাকি নেওয়া উচিত? এ ধরনের বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করা হয়েছে, কিংবা বলা ভালো, প্রশ্ন ছুড়ে দেওয়া হয়েছে এই অ্যানিমে।

সমস্যা দুই. সিস্টেমেই সমস্যা। অ্যানিমেটি কিছু দূর এগোনোর পর দেখা যায় এমন কিছু লোক আছে যারা দিব্যি অপরাধ করে যাচ্ছে, সিস্টেম তাদের স্ক্যান করে ‘অপরাধ’ খুঁজে পাচ্ছে না। কেন? জানতে হলে দেখতে হবে অ্যানিমেটি।

default-image

এর মূল চরিত্র আসলে দুজন—কোগামি আর মাকিশিমা। তবে কে যে নায়ক আর কে যে ভিলেন তা কখনোই পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যায় না। চাইলে হয়তো মাকিশিমাকে ভিলেন আখ্যা দেওয়া যায়, তবে পুরো সিরিজে অনেকের প্রিয় চরিত্র হতে পারে এই মাকিশিমাই। যদিও ভালো-মন্দ হিরো-ভিলেন চরিত্রের সীমারেখা এই অ্যানিমের পরিপ্রেক্ষিতে অনেকাংশেই অস্পষ্ট। সুন্দর গল্প, চমত্কার গান, দারুণ ক্যারেক্টার ডেভেলপমেন্ট এবং কৌতূহলোদ্দীপক সমাপ্তির নিয়ে বেশ উপভোগ্য এই সিরিজটি।

ছবি: অ্যানিমেনিউজনেটওয়ার্ক ডটকম

বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন