মাসফিয়ার সাক্ষাৎকার

রেগে যাই—

অযৌক্তিক কথা শুনলে

প্রিয় উৎসব—

কিআনন্দ

যে তিন শব্দে নিজেকে বিশ্লেষণ করি—

বাস্তববাদী, স্বাধীনচেতা আর সাহসী

জীবনে কি কোনো আফসোস আছে?

একটাই। এখন পর্যন্ত আমার চিন্তাধারা কেউ বুঝতে পারেনি।

টাইম মেশিন থাকলে যে সময়ে যেতে চাই—

মুক্তিযুদ্ধের সময়। গিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের সাহায্য করব।

জীবনের তিন চমক—

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় এ+ পাওয়া, আন্তস্কুল টেনিস প্রতিযোগিতায় পঞ্চমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন এবং কিআনন্দ ২০১৬তে স্বেচ্ছাসেবক হওয়া।

১০ বছর পর নিজেকে যেভাবে দেখতে চাই—

সফল আন্তর্জাতিক টেনিস খেলোয়াড়, প্রোগ্রামার ও মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন মানুষ

আলাদিনের চেরাগ পেলে যা চাইতাম—

অন্যায়, অশিক্ষা আর নারী-পুরুষের বৈষম্যমুক্ত পৃথিবী।

জীবন থেকে পাওয়া সবচেয়ে বড় শিক্ষা—

যে আমার মূল্য বোঝে না তার সঙ্গে থেকে লাভ নেই। সে শুধু বন্ধুত্বের নামে আমাকে ব্যবহার করবে।

(কিশোর আলোর মে ২০১৭ সংখ্যায় প্রকাশিত)

ফিচার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন