default-image

ছোটবেলার কথা মনে পড়ে? যখন মা দুপুরে খাওয়ার পর ভাতঘুম দিত আর তোমাকেও জোর করত ঘুমাতে। কিন্তু তুমি ছিলে মহা চালাক! মায়ের চোখ লেগে আসতেই উঠে পড়তে বাইরে খেলতে যাবে বলে। সেখানেও বিপত্তি, ছোট্ট তুমি কিন্তু অত উঁচুতে লাগানো ছিটকিনির নাগাল পেতে না! অগত্যা মন খারাপ করে জানালার গ্রিল ধরে অসহায় চোখে বাইরের পথচারীদের দেখতে আর ভাবতে ওরা কত্ত স্বাধীন আর তুমি কি না ঘরবন্দী!

অনেকটা এমন অবস্থাতেই পড়েছে বোগার্ট। বোগার্ট হচ্ছে সুদূর ডেনমার্কের পোষা এক কুকুরছানা। যার মালকিন এক মধ্যবয়স্ক নারী, নাম র‍্যানভেইগ লেভিনসেন। র‍্যানভেইগের বাড়িতে আছে দুটো কুকুর—বোগার্ট আর তার মা উইনস্টোন (ছেলেদের নাম নিতে সে নাকি আপত্তি করেনি)।

default-image

এই ছোট্ট বোগার্ট বেশ কৌতূহলী! বাড়ির পাশের রাস্তা দিয়ে চলাচল করা মানুষজন দেখতে সে ভীষণ আগ্রহী। তবে লকডাউনে বন্দী অবস্থায় সেটা তো সম্ভব নয়। তাই র‍্যানভেইগ এমন বুদ্ধি বের করলেন যেন বাড়ির চারপাশে ঘিরে দেওয়া বেড়া টপকে লাফিয়ে বের হয়ে না যায় বোগার্ট, পথচারী দেখার আশায়! তিনি বেড়া কেটে ছোট ছোট গোল গর্ত বানিয়ে দিলেন যেন বোগার্ট গর্তে মাথা গলিয়ে বাইরে দেখতে পায়। অন্যদিকে র‍্যানভেইগের মেয়ে বেড়ার বাইরের দিকে রং দিয়ে অদ্ভুত পোশাকের মতো এঁকে দিল। এতে করে বোগার্ট যখন সেই গর্তে মাথা ঢুকিয়ে বাইরে দেখে, তখন তাকে হাবাগোবা এক কৌতূহলী শিশুর মতো দেখায়!

default-image

ঠিক এ রকম একটা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে সবাই বোগার্টের কথা জানতে পারে। তারপর সবার তো একটাই কথা, কৌতূহলী চোখে তাকিয়ে থাকা এই কুকুরছানাটা যেন রাস্তার রাজা!

সূত্র : বোরডপান্ডা

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0