default-image

বাংলাদেশের শিক্ষাস্থরের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ বিশ্ববিদ্যালয়, যেখানে পাবলিক ও প্রাইভেট মিলে প্রায় ১২ লাখ শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত। ১৭ মার্চ থেকে সারা দেশে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোসহ সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পরিস্থিতির কারণে এই ছুটি দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে।

এমন অবস্থায় বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে অনলাইনে শিক্ষাকার্যক্রম অব্যাহত রাখতে বলেছে। তবে অনলাইনে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি খুব বেশি সন্তোষজনক নয় বলে দাবি অনেকের। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধে দীর্ঘতা, একঘেয়েমি জীবন, অনলাইন ক্লাস অংশগ্রহণে সীমাবদ্ধতা, চাকরির অনিশ্চয়তা, সেশন জটের সম্ভাবনা ও শিক্ষার্থীদের নানামুখী চ্যালেঞ্জে নিয়ে শিক্ষক ও নীতিনির্ধারকেরা কী ভাবছেন?

কিশোর আলোর ফেসবুক পেজে অনুষ্ঠিত ছয় পর্বের ধারাবাহিক আলোচনা অনুষ্ঠান ‘হাতে নিয়ে আলোকবর্তিকা’র ৫ম পর্বে জানা যাবে সেই উত্তর। তরুণ শিক্ষাগবেষক মুনিয়া ইসলাম মজুমদার ও তাসনিম আফরোজের উদ্যোগে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হবে আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়।  

এবারের আলোচ্য বিষয়, ‘কোভিড-১৯ সময়ে বাংলাদেশে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষা ও গবেষণার অনুশীলন, শিখন পদ্ধতি ও অভিযোজনের স্বরূপ বিশ্লেষণ’। আলোচক হিসেবে থাকবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. ফারহানা হেলাল মেহতাব, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক মো. মনোয়ার হোসেন ও নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালযয়ের সহকারী অধ্যাপক জি এম রাকিবুল ইসলাম।

এর আগে গত ২৫ জুলাই হাতে নিয়ে আলোকবর্তিকার চতুর্থ পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় বক্তারা সকল শিশুদের শিক্ষার অন্তর্ভুক্তির, সমন্বয় ও সম্পৃক্ততা রক্ষায় সমন্বিত প্রয়াসের প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

এ আয়োজনের স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার কিশোর আলো। ইয়ুথ এঙ্গেজমেন্ট পার্টনার হিসেবে আছে প্রথম আলোর ফিচার পাতা স্বপ্ন নিয়ে। এ ছাড়া নলেজ পার্টনার হিসেবে বাংলাদেশ ইয়ুথ লিডারশিপ সেন্টার (বিওয়াইএলসি) ও টেকনিক্যাল পার্টনার হিসেবে রয়েছে লাইট অফ হোপ। আলোচনাটি কিশোর আলোর পেজ ছাড়াও সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলোর ফেসবুক পেজে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। 

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0