আমরা সবাই রাজা কিআ

আমরা সবাই রাজা কিআ

তোমাদের লেখা

শার্ট

সেদিন ছিল আমাদের র‌্যাগ ডে, স্কুলজীবনের শেষ দিন। দিনটাকে স্মরণীয় করে রাখতে অনেক স্কুল–কলেজেই শার্টে লেখার প্রচলন আছে।

শার্ট

তোমাদের লেখা

লাল জামা পরা টম

একদিন দেখি, আমার ভাই শুধুই একরঙা জামা পরে ঘুরে বেড়াচ্ছে। জিজ্ঞাসা করতেই ভাই বলল, সে নাকি টম স্কটের মতো ‘ব্র্যান্ড’ চায়। কৌতূহলী হয়ে আমি টম স্কটের ভিডিও দেখা শুরু করলাম।

লাল জামা পরা টম

তোমাদের লেখা

নাচতে না জানলে

পলাশীর যুদ্ধের কাহিনি নিয়ে নাটক হবে স্কুলে। শিহাব নামে এক সিনিয়র ভাই জোর করে সিরাজউদ্দৌলা চরিত্রে অভিনয় করবেনই করবেন। বড় ভাইয়ের হুমকির কারণে ছোটরা উনাকে নাটকে নিতে বাধ্য হলো।

নাচতে না জানলে

তোমাদের লেখা

দরজা

মাঠ থেকে এক হাতে একটু ঘাস তুলে নিল রাশেদ। তার কিছুই করার নেই। স্কুল থেকে খুব একটা হোমওয়ার্কও দেয়নি, অল্প কিছুক্ষণে শেষ করা যাবে। বাসার সব গল্পের বই পড়া শেষ, সেগুলো আবার পড়তে ইচ্ছা করছে না। মন খারাপ ...

দরজা

তোমাদের লেখা

মিসকি

আমি হলাম মিসকি/করি কিচকিচ।/বিড়াল পিছু এলে/করি খিঁচ খিঁচ।

মিসকি

তোমাদের লেখা

হারানো দিনের স্মৃতি

শোঁ শোঁ করে বয়ে যাওয়া বসন্তের বাতাস উড়িয়ে আনল কয়েকটি শিমুলগাছের পাতা। সঙ্গে যোগ দিল গোলাপ, বেলি, শিউলি, বকুল আরও কত ফুলের সুবাস!

হারানো দিনের স্মৃতি

তোমাদের লেখা

স্বপ্ন

আমি একটা ছোট্ট মেয়ে/নামটা আমার মোনা/স্বপ্ন আমার হরেক রকম/আঙুলে নেই গোনা।

স্বপ্ন

তোমাদের লেখা

নোটবুক

আমার একজন স্যার ছিলেন, সহজ মানুষ বলা যায়। একদিন তিনি বললেন, তাঁর কাছে কিছু একটা চাইতে। তখন আমি চেয়েছিলাম একটা নোটবুক। তখন সম্ভবত সেভেন-এইটে পড়ি। তারপর থেকেই নোটবুকটা আমার সঙ্গী।

নোটবুক

তোমাদের লেখা

ছোট হলদে ফুল

মাঠের মাঝখানে জন্মেছিল কিছু সুন্দর ছোট ছোট হলদে ফুল। সেগুলোর মধ্যে একটির নাম পলমা। বৃষ্টি খুব পছন্দ পলমার। বৃষ্টি হলে পলমা গান গায় আপনমনে।

ছোট হলদে ফুল

তোমাদের লেখা

জন্মদিন

আমার জন্মদিনে আমি কেক খেতে চেয়েছিলাম। কয়েক দিন পর...

জন্মদিন
আরও